উচ্চ শিক্ষা অর্জনে বিদেশ যাওয়ার বিকল্প নেই। তার জন্য চাই বিদেশী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়া। তবে ভর্তি হওয়ার আগে নিজের বিষয়ের সাথে মিল আছে এবং ফান্ডিং আছে এরকম বিশ্ববিদ্যালয় খুঁজতে অনেক সময় ব্যায় করতে হয়। অনেকের বিরক্তি চলে আসে। সেজন্য যদি বিশ্ববিদ্যালয় কিভাবে খুঁজতে হয় সে সম্পর্কে জানা থাকে সেক্ষেত্রে প্রক্রিয়া অনেক সহজ হয়ে যায়।

শুরুতেই গুগল মামা:

সাবজেক্টের সাথে মিল রেখে বিশ্ববিদ্যালয় খুঁজবার জন্য শুরুতেই আপনার শরনাপন্ন হওয়া উচিত গুগলের। উদাহরন হিসেবে ধরা যাক, আপনি যুক্তরাষ্ট্রে পড়াশুনা করতে আগ্রহী এবং টেক্সটাইল বিষয়ক বিশ্ববিদ্যালয় অনুসন্ধান করতে ইচ্ছুক। সেক্ষেত্রে  Universities for Textile in USA লিখা মাত্র গুগলের পেইজে চলে আসবে পর্যাপ্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের লিংক। যত বেশি লিংক যাচাই করা যায় ততো ভালো। সবশেষে লিংক গুলো থেকে পছন্দের বিশ্ববিদ্যায়ের একটা ছোট তালিকা বানানো উচিত।

Screenshot_1

সাবজেক্ট খোঁজা:

বিশ্ববিদ্যালয়ের সংক্ষিপ্ত তালিকা করা শেষ। এবার পালা সেই বিশ্ববিদ্যালয়ে আপনার বিষয়ের সাথে সম্পর্কিত কি কি কোর্স আছে তা খতিয়ে দেখা। এ কাজের ঐ বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েব সাইট হতে পারে আপনার জন্য সবচেয়ে কার্যকরি মাধ্যম। প্রায় সব বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব ওয়েব সাইটের হোমপেইজে সার্চ করার অপশন থাকে। এখানে আপনার কাঙ্ক্ষিত বিষয়ের নাম লিখে Enter চাপলে বর্ণমালার ক্রমধারা অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়টিতে যেসব বিষয় পড়ানো হয় তার একটি তালিকা চলে আসবে।

Screenshot_2 Screenshot_4

প্রফেসর খোঁজা:

সার্চ করে যে তালিকা পাওয়া যাবে এখানে ক্লিক করলে সেই বিষয়ের প্রফেসর কে কে আছেন তা সেই সম্পর্কে দরকারি তথ্য পাবেন। আবার বিশ্ববিদ্যালয়ের Future Student, Undergraduate Student, Graduate Student অপশন থেকেও একইভাবে প্রফেসর খুঁজা সম্ভব। সেই সাথে কোন কোন প্রফেসর আপনার বিষয়ের উপর কাজ করেন এবং কোন বিষয় নিয়ে কাজ করেন এসব জানা যাবে। যা আপনার পছন্দ করা বিষয়ের সাথে প্রফেসরের কাজে গতি মিলবে কিনা তা বুঝতে সহায়ক হবে।

Screenshot_5 Screenshot_6

প্রফেসরের খুঁটিনাটি জানা:

সব প্রফেসরের হাতে ফান্ড বা স্কলারশিপ দেওয়ার সুযোগ থাকে না। তাই প্রফেসর বাছাই করার সময় সেই দিকটি খেয়াল রাখা উচিত। প্রফেসরের নামের তালিকা থেকে কোন প্রফেসর লিংকে প্রবেশ করলে প্রফেসরের নিজস্ব ওয়েবসাইট, ঠিকানা পাওয়া যাবে। প্রফেসর রিসার্চে কেমন সক্রিয়, কতগুলো পাবলিকেশন করেছেন, বিগত বছর গুলোতে কি পরিমান ফান্ড পেয়েছেন- এসব তথ্য সেই ওয়েব পেইজ থেকে পাওয়া যাবে।

Screenshot_7 Screenshot_8

চূড়ান্ত তালিকা:

“প্রফেসর খোঁজা”, ”প্রফেসরের খুঁটিনাটি জানা” – এই দুই রকম ফিল্টার পার হবার পর যে কয়টি বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম উঠে আসবে তার একটি চূড়ান্ত তালিকা করা উচিত। এবং সেই তালিকায় প্রফেসরের ই-মেইল ঠিকানা ধরে ধরে ই-মেইল করা শুরু করা উত্তম।

Comments

comments