ইউনিভার্সিটি অ্যাপ্লিকেশন: ডেডলাইনের খুঁটিনাটি

আমেরিকান বিশ্ববিদ্যালয়ে অ্যাপ্লিকেশন ডেডলাইনগুলো অনেক বেশি পরিবর্তনশীল হয়। অ্যাপ্লিকেশন ডেডলাইনগুলো ভার্সিটি, ডিপার্টমেন্ট এবং কোর্সের উপর নির্ভর করে বিভিন্ন হয়। তবে বিশ্ববিদ্যালয় পিএইচডি এবং মাস্টার্স প্রোগ্রামে আবেদনের সময় মূলত ৩ ভাবে দেয়া থাকে- ১. আবেদন শুরুর ডেট থাকে তবে শেষ হবার কোন নির্দিষ্ট ডেট থাকে না। তবে বলে দেয়া থাকে যে, কবে থেকে অফার লেটার দেয়া শুরু হবে। […]

Read More

আমেরিকান বিশ্ববিদ্যালয় vs আয়েল্টস স্কোর

সাধারণত আমেরিকান শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ইন্টারন্যাশনাল আবেদন এবং স্কলারশিপের জন্য আয়েল্টস ব্যান্ড স্কোর প্রতিষ্ঠান ভেদে একেক রকমের হয়ে থাকে। নিচের ছকে আমেরিকান যে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আয়েল্টস ব্যান্ড স্কোর গ্রহণ করছে তাদের একটি তালিকা দেখে নিতে পারেন-

Read More

প্রফেসরকে প্রথম ইমেইলটি করার সময় কী কী বিষয় মাথায় রাখা দরকার?

১ সৌজন্যতা কমবেশি সবাই পছন্দ করে। অনেকসময় অপ্রয়োজনীয় মনে হলেও কিছু ক্ষেত্রে এইদিকটা খেয়াল রাখা উচিত। যেমন, প্রথম লাইনেই প্রফেসরকে লিখতে পারেন, ‘আপনার অনুমতি না নিয়ে ইমেইল করার জন্য প্রথমেই ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি’। যদিও আপনি খুব ভালভাবেই জানেন যে, প্রথম ইমেইল পাঠানোর ক্ষেত্রে অনুমতি নেবার কোনই সুযোগ নেই। তবু এটা একটা ভদ্রতার অংশ। সেইখেত্রে প্রথম […]

Read More

Billionaire'দের সংখ্যা অনুসারে শীর্ষ বিশ্ববিদ্যালয়

বিলিয়ন মানে একশত কোটি। যাদের সম্পদের মূল্যমান শত কোটি ডলারের উপরে তাদেরকে সাধারণত বিলিওনিয়ার বলা হয়। সেই সাথে বিবেচনা করা হয় নেতৃস্থানীয় হিসেবে। সব বিশ্ববিদ্যালয়েরই প্রধাণ লক্ষ্য থাকে গবেষক, নোবেলজয়ী অথবা নেতৃস্থানীয় কোন গ্রজুয়েট তৈরি করা। সেই দৌড়ে কে কতটা এগিয়ে তা মাপার জন্য আছে অনেক রকম মানদন্ড। যেমন: এরকম একটি মানদন্ডের নাম বিলিওনিয়ার। দেখা যাক সেই মানদন্ডে […]

Read More

ফান্ডিং / স্কলারশীপ সমাচার

ফান্ডিং,  যেন এক সোনার হরিণ। অ্যাপ্লাই করার সময় স্বভাবতই জানার ইচ্ছা থাকে আমেরিকার বিশ্ববিদ্যালয়গুলো কি পরিমাণ ফান্ড একজন স্টুডেন্টকে বছরে দিয়ে থাকে। উত্তরে বলতে হয় এটা নির্ভর করে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপর। বিশ্ববিদ্যালয় এবং ডিপার্টমেন্ট ভেদে ফান্ডের পরিমাণ কমে বাড়ে। আবার একই বিশ্ববিদ্যালয়ের একই ডিপার্টমেন্টে এক বছরে যে ফান্ড দেওয়া হবে তা পরের বছরের সাথে মিলতে নাও […]

Read More

অ্যাডমিশন না পেলে পরের বছর ঐ একই বিশ্ববিদ্যালয়ে আবার অ্যাপ্লাই করা

কোন কারণে অ্যাডমিশন ডিনাই হলে  আপনি অবশ্যই পরের বছর বা পরের সেমিস্টারে আবার আবেদন করতে পারবেন। মনে রাখতে হবে, ঐ বিশ্ববিদ্যালয়ে যেহেতু আপনার জিআরই আর টোফেল স্কোর আগে একবার পাঠানো হয়েছে, সে কারনে আবার টাকা খরচ করে এগুলো পাঠানোর প্রয়োজন হবে না। শুধুমাত্র নতুন অ্যাপ্লিকেশন ফর্ম আর ফি পরিশোধ করলেই হবে। তাছাড়া যেহেতু আপনি একবার অ্যাপ্লাই করেছেন, কিছু […]

Read More

আমেরিকান বিশ্ববিদ্যালয়ে মাস্টার্স আর পিএইচডি করতে কতোদিন লাগবে?

অধিকাংশ আমেরিকান বিশ্ববিদ্যালয়ে মাস্টার্স প্রোগ্রাম সাধারণত দুই বছরের। অন্যদিকে পিএইচডির জন্য কত সময় লাগবে তা নির্ধারিত করা একটু কঠিন। কেননা এটা নির্ভর করে প্রজেক্টের বিভিন্ন গবেষণার সফলতার উপর। তবে সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় প্রফেসরের হাতে গবেষণা কাজ চালানোর মতো কি পরিমাণ ফান্ড আছে তার উপর। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই ৪ থেকে ৫ বছরের মতো সময় লাগে। অনেক ক্ষেত্রে ৭ বছর পর্যন্ত লাগতে পারে।  

Read More

ফরম অব রেকমেন্ডেশন (FOR) কি?

ফরম অব রেকমেন্ডেশন বা FOR হলো লেটার অব রেকমেন্ডেশন (LOR) এর অনলাইন সংস্করণ। অনেক আমেরিকান বিশ্ববিদ্যালয় তাদের ওয়েবসাইটে একটি ফরম দিয়ে দেয় যার মধ্যে স্টুডেন্টের কিছু গুণাবলীর নাম লিখে তার ডান পাশে স্কোরিং করতে বলা হয়। উদাহরণ স্বরূপ- নিয়মানুবর্তিতা (discipline), লিডারশীপ/নেতৃত্বদানের ক্ষমতা (leadership), স্নাতোকোত্তর পর্যায়ের গবেষণা করার ক্ষমতা (potentiality to pursue graduate studies) ইত্যাদিকে ০ […]

Read More