গ্রেকের চৌকষ দলে ১২ সপ্তাহের ইন্টার্নশিপের সুযোগ

গ্রেকের গবেষণা ও উন্নয়ন (Research and Development, R&D) বিভাগের অধীনে ইন্টার্ন হিসাবে যোগদান করতে আগ্রহীদের সম্ভাব্য সকল প্রশ্নের উত্তর দেবার জন্য এই আর্টিকেলটি লেখা হয়েছে।

১. সংজ্ঞা ও মেয়াদ:

ইউনিভার্সিটির লেখাপড়া শেষ করে চাকুরিতে প্রবেশের সময় কেবল কাজের অভিজ্ঞতা না থাকার কারণে অনেক প্রার্থীকে ফিরিয়ে দেওয়া হয়। গ্রেকের তত্ত্বাবধানে আমরা নির্বাচিত কিছু গ্র্যাজুয়েটকে এই ইন্টার্ন ট্রেনিং এর সুযোগ দিচ্ছি। বিশ্ববিদ্যালয়ের শেষ বর্ষে অধ্যয়নরত বা ফ্রেশ গ্র্যাজুয়েটদের বিনা খরচে হাতে-কলমে প্রশিক্ষণ দেবার উদ্দেশ্যে এই উদ্যোগ। মেয়াদ ১২ সপ্তাহ (প্রায় ৩ মাস); প্রতি কার্যদিবসে মাত্র ৪ ঘন্টা কাজ করতে হবে; সপ্তাহে ৫ টি কার্যদিবস (২ দিন বাসায় বসে কাজ করা যাবে) এভাবে পুরো ট্রেনিং পিরিয়ডে মোট ৬০ দিনে সম্পন্ন হবে। অর্থাৎ মোট ২৪০ ঘণ্টার ট্রেনিং সম্পন্ন করতে হবে। সম্পূর্ণ মেয়াদ শেষ করতে হবে এবং কাজ ও যোগাযোগের ক্ষেত্রে পেশাদারিত্বের প্রমাণ রাখতে হবে। শখের বশে একটু চেখে দেখলাম এবং কাজের গুরুত্ব বাড়ার পর সটকে পড়লাম এমন মানসিকতা সম্পন্নদের আবেদন করা থেকে বিরত থাকতে বলা হচ্ছে।

২(ক). এই প্রজেক্টের প্রতি আপনার প্রত্যাশা:

সফলভাবে ইন্টার্ন সম্পন্নকারীরা ৩ মাস শেষে যা পাবেন:
(ক) গ্রেকের পক্ষ থেকে সনদপত্র।
(খ) সৌজন্য উপহার।
(গ) সিভি ও লিংক্ড-ইন এ উল্লেখ করার মতো একাধিক প্রেজেন্টেশন ও প্রফেশনাল ট্রেনিং সেশন।
বিভিন্ন জব ট্রেনিং কোর্সের অধীনে ক্লাসরুমে যা শেখানো হয়, তার চেয়ে অনেক বেশি অভিজ্ঞতা ও প্রশিক্ষণ এই প্রকল্পটির মাধ্যমে একদম বিনামূল্যে পাওয়া যাবে। এজন্য ইনটার্নদের কোন নির্দিষ্ট পরিমাণ আর্থিক সুবিধা বা বেতন দেওয়া হবে না, তবে কিছু সৌজন্য উপহার দেওয়া হবে।
গ্রেকের পক্ষ থেকে আমরা ইনটার্নদের মাধ্যমে দুইভাবে উপকৃত হয়ে থাকি: (১) কোন চলমান প্রজেক্টের একটি অংশ একজন ইন্টার্নকে অ্যাসাইন করে দেওয়ার মাধ্যমে প্রজেক্টের গতি বৃদ্ধি করা, এবং (২) ভবিষ্যতে নিয়োগের সময় ইন্টার্নদের মধ্যে থেকেই বাছাই করে নেবার মাধ্যমে আগাম ট্রেইনিং এর সময় কমিয়ে আনা।

২(খ) প্রজেক্টের কাঠামো

এই প্রজেক্টে মোট ৬ টি ব্লক আছে। প্রতিটি ব্লক ২ সপ্তাহ মেয়াদী। ইন্টার্নদের সবগুলো ব্লক সম্পন্ন করতে হবে। নীচের ছবিতে ব্লকগুলো দেখানো হলো।

Intern_article01

ব্লকের ১ নং ও ১০ নং দিন যথাক্রমে প্রজেক্ট ইনট্রোডাকশন ট্রেনিং এবং সমাপনী রিপোর্টিং এর জন্য ব্যবহৃত হবে। ব্লকের ৫ নং (প্রথম সপ্তাহের শেষ দিন) ও ১০ নং (দ্বিতীয় সপ্তাহের শেষ দিন) দিন চলমান ও সম্পন্ন প্রজেক্টের অগ্রগতির উপর ভার্চুয়াল প্রেজেন্টেশন প্রদান করতে হবে। প্রতি দিন শেষে সুপারভাইজারের স্বাক্ষর সংগ্রহ করতে হবে এবং একটি ব্লক শেষ হবার পর গ্রেকের পক্ষ থেকে পাওয়া ট্রেনিং এবং সুপারভাইজারের মেনটোরিং এর উপর রিভিউ প্রদান করতে হবে। উল্লেখ্য, গ্রেকে আমরা পারষ্পরিক রিভিউ ও সহযোগিতার মাধ্যমে নিজেদের জ্ঞান ও দক্ষতা বাড়ানোর চর্চা করি।

৩. নিয়োগ পদ্ধতি:

গ্রেকের নিয়োগ পদ্ধতিতে আমরা যথাসম্ভব স্বচ্ছতা রাখার চেষ্টা করি। অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানে যেভাবে সার্চ ও ইন্টারভিউ নেওয়া হয় তার থেকে গ্রেকের প্রক্রিয়াটি বেশ আলাদা। আগ্রহী প্রত্যেককে তাই পুরো বিষয়টি নীচে বর্ণিত বিবরণ থেকে বুঝে নেবার অনুরোধ করা হচ্ছে। এখানে গ্রেকের ফুল টাইম এমপ্লয়মেন্টের নিয়োগ প্রক্রিয়া বর্ণিত হয়েছে যার অনেক কিছু ইন্টার্ন পদের জন্য প্রযোজ্য হবে না।

৩.১. জব পোস্ট ও গুগল ফর্মের মাধ্যমে প্রাথমিক তথ্য সংগ্রহ

গ্রেকের জব বিষয়ক সাইটের লিংক jobs.grecbd.com, যেখানে দরকারী সব তথ্য পাওয়া যাবে। যেকোন জবের পোস্ট আমরা আমাদের ফেইসবুক পেইজ ও গ্রুপে দেই এবং কিছু ক্ষেত্রে জব সাইট (যেমন বিডিজবস) এও দেওয়া হয়। দয়া করে জব পোস্ট দেখে ইমেইলে সিভি পাঠাবেন না বা সরাসরি অফিসে যোগাযোগ করবেন না। যেহেতু একেকজন মানুষ একেক ফরম্যাটে সিভি লেখেন এবং অধিকাংশ সিভিতে আমাদের দরকারী বিষয়গুলো অনুপস্থিত থাকে, আমরা আবেদনকারীদের সরাসরি সিভি পাঠানো থেকে বিরত থাকতে বলি। প্রতিটি জব পোস্টের সাথে একটি গুগল ফর্মের লিংক থাকে যার মাধ্যমে আমরা সুনির্দিষ্ট কিছু তথ্য সংগ্রহ করে থাকি। ওই তথ্যের ভিত্তিতে আমরা দ্বিতীয় ধাপে অগ্রসর হই। আপনাকে গুগল ফর্ম পূরণ করার পর নিয়মিত ইমেইল চেক করতে হবে, কারণ আমরা দ্বিতীয় ধাপের ইন্টারভিউ (অন-সাইট ভিডিও প্রেজেন্টেশন) এর অফার ইমেইলে পাঠাই। ইমেইল পাঠানোর পর ৭২ ঘন্টার মধ্যে রিপ্লাই না পাওয়া অটোমেটিক্যালি আবেদনকারীর পেশাদারিত্বের ঘাটতি প্রমাণ করে।

৩.২ অন-সাইট ভিডিও প্রেজেন্টেশন

গুগল ফর্মের তথ্যের উপর ভিত্তি করে ইমেইলে অন-সাইট ইন্টারভিউ এর আমন্ত্রণ পাঠাবো। প্রয়োজনে টেলিফোনেও যোগাযোগ করা হতে পারে। ইমেইলে উল্লেখিত নিয়ম অনুসরণ করতে হবে। সাধারণ নিয়মগুলো নীচে দেওয়া হলো। অন-সাইট ইন্টারভিউ টি ভিডিও প্রেজেন্টেশনের প্রশ্নগুলো আমরা আগেই ইমেইলের মধ্যে বলে দেই যাতে আপনি কিছুটা প্রস্তুতি নিয়ে আসতে পারেন।

৩.২(১). সাথে করে যা আনতে হবে:

নিজের এক কপি সিভি প্রিন্ট করে সাথে আনবেন। প্রথম পাতার সাথে রঙিন একটি ছবি স্ট্যাপল করা থাকতে হবে। গ্রেকের ওয়েবসাইট, ফেইসবুক পেইজ, গ্রুপ ও ইউটিউব থেকে প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে আগাম ধারণা রাখুন। যে ধরণের কাজের জন্য আবেদন করেছেন সে সম্পর্কে ধারণা নেবার চেষ্টা করুন।

৩.২(২). উপস্থিতি:

ইন্টারভিউয়ের কমপক্ষে ১৫ মিনিট আগে উপস্থিত থাকতে চেষ্টা করুন। ইন্টারভিউতে অংশ নেবার জন্য গ্রেকে থেকে কোন টিএ বা ডিএ দেওয়া হয় না।

৩.২(৩). ফ্রন্ট ডেস্কে চেক ইন, ব্যাজ ও ফরম সংগ্রহ:

আপনাকে ফ্রন্ট ডেস্ক থেকে একটি ব্যাজ ও দুই পাতার ইন্টারভিউ ফর্ম দেওয়া হবে যার মধ্যে থাকবে (১) ইন্টারভিউতে যেসব প্রশ্নগুলোর উত্তর আপনাকে পরিবেশন করতে হবে এবং (২) অপশনাল ফিডব্যাক ফর্ম। অনুগ্রহ করে ব্যাজটি শার্ট (বা পোশাকের) বাম পাশে পরিধান করুন। নিয়োগ প্রক্রিয়াটি স্বচ্ছ রাখার জন্য আমরা প্রেজেন্টেশনটি ভিডিও রেকর্ড করবো, যা কেবল গ্রেকের সার্চ কমিটি ও উচ্চ কর্মকর্তারাই দেখতে পাবেন (কখনোই কোন অবস্থাতেই এগুলো পাবলিক করা হবে না)।

৩.২.(৪) ইন্টারভিউয়ের ভিডিও ধারণ, ব্যাখা ও সম্মতি:

গ্রেকের ইন্টারভিউ পর্বটি ভবিষ্যতে বিশ্লেষণের জন্য ভিডিওতে ধারণ করা হয়ে থাকে। আমাদের অনসাইট প্রেজেন্টেশন অংশ নেবার অর্থ হলো আপনি এই নিয়মের সাথে সম্মতি প্রকাশ করছেন। মোট ১৫ মিনিটের মধ্যে আমরা চেষ্টা করবো সবগুলো প্রশ্নের উত্তর শেষ করতে। ভিডিওতে যাতে বোঝা যায় কখন ঠিক কোন প্রশ্নের উত্তরে আপনি কথা বলছেন, সেজন্য আপনার পাশে রাখা একটি ডিসপ্লে বোর্ডে নম্বর পরিবর্তন করা হবে। বিষয়টি আমাদের জানামতে বাংলাদেশের কোথাও করা হয়না এবং আপনার কাছে অদ্ভূত লাগতে পারে। কিন্তু আমাদের সামগ্রিক হায়ারিং এর “প্রসেস ইম্প্রুভমেন্ট” এর জন্যে এটি অত্যন্ত দরকারী একটি অংশ। উদাহরণ স্বরূপ আমরা ৪ নং প্রশ্নের উত্তরে কোন ক্যান্ডিডেট কী বলেছেন তা এই পদ্ধতিতে সরাসরি বের করতে পারি। সমস্ত সুন্দর আবিষ্কারই প্রথমে উদ্ভট মনে হয়। নীচের ছবিতে বিষয়টি বোঝানো হলো।

interview

৩.২.(৫) ভিডিও প্রেজেন্টেশন রুমের ভেতরে:

ভিডিও প্রেজেন্টেশন রুমে প্রথমে আপনাকে আপনার সাথে করে আনা সিভিটি জমা দিতে বলা হবে। আপনাকে যে ফরম দেওয়া হয়েছিল তা অনুযায়ী আপনি উত্তর প্রদান করা শুরু করবেন। রুমে কেবল মাত্র একজন ভিডিও ধারণকারী ছাড়া কেউ থাকবে না। মোবাইল ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে আপনার উত্তরগুলো একে একে বলতে থাকুন।
প্রেজেন্টেশন হবে বাংলায়। দয়া করে ইংরেজীতে উত্তর বলা থেকে বিরত থাকুন, যদি না স্পষ্ট নির্দেশ দেওয়া থাকে। অবশ্যই মোবাইল সাইলেন্ট বা সুইচ অফ করে রাখুন।
একটি প্রশ্ন থাকবে যেখানে আপনাকে ১-২ মিনিটে সাধারণ কথ্য ইংরেজীতে কিছুর বিবরণ দিতে হবে, কেবলমাত্র ওই প্রশ্নটির উত্তর ইংরেজীতে দিন।

৩.২.(৬) প্রস্থান ও ফ্রন্ট ডেস্কে চেকিং আউট

ভিডিও প্রেজেন্টেশন শেষে রুম থেকে বেরিয়ে এসে আবার ওয়েটিং রুমে বসে ইন্টারভিউ ফরমের শেষ পাতার ফিডব্যাক সার্ভেটি পূরণ করতে হবে। এরপর ইন্টারভিউ ফর্ম ও ব্যাজটি খুলে ফ্রন্ট ডেস্কে জমা দিয়ে প্রস্থান করুন।

৩.৩. গ্রেকের প্রধান নির্বাহীর সাথে অনলাইন ইন্টারভিউ

প্রথম ধাপে ভিডিও প্রেজেন্টেশন থেকে নির্বাচিতদের মধ্যে থেকে আপনাকে পরের ধাপে অনলাইনে গ্রেক সি.ই.ও. মামুন রশিদের সাথে গুগল হ্যাং আউটে মীট করতে হতে পারে। এই ইন্টারভিউ এর আগে আপনাকে ঢাকা থেকে যোগাযোগ করা হবে। ইন্টারভিউয়ের প্রথম ১-দেড় মিনিট আমরা আইসব্রেকিং করবো এবং অপ্রাসঙ্গিক হাল্কা গল্প করে আপনাকে পরিবেশের সাথে উপযোগী করে নেবো। এজন্য “আসতে কোন অসুবিধা হয়নি তো” বা “কালকের ক্রিকেট ম্যাচটা কেমন এনজয় করলেন” এরকম আইসব্রেকিং প্রশ্নের উত্তরে দীর্ঘ গল্প বলা থেকে বিরত থাকুন। ইন্টারভিউয়ের শেষে আপনাকে আমাদের উদ্দেশ্যে প্রশ্ন করতে দেওয়া হবে। সেজন্য আপনাকে করা প্রশ্নের মধ্যে উত্তরের সাথে সংক্ষিপ্ত সম্পূরক প্রশ্ন করা যেতে পারে তবে একদম আলাদা বিষয়ে নতুন প্রশ্ন যোগ করা থেকে বিরত থাকুন ।

৩.৪ চূড়ান্ত নিয়োগ

নিয়োগের জন্য আপনি মনোনিত হলে আপনাকে অফিসে এসে নিয়োগ পত্র সংগ্রহ করতে হবে। সকল বিষয়ে সম্মত হলে পত্রের শেষ পৃষ্ঠায় স্বাক্ষর করে অরিজিনাল কপিটি অফিসে জমা দিয়ে ফটোকপি নিজের কাছে রাখতে হবে। নিয়োগপত্র নেবার সময় আপনাকে সাথে করে পূর্বের যাবতীয় অরিজিনাল ট্রান্সক্রিপ্ট বা সনদপত্র বা মার্কশীট, ও জাতীয় পরিচয় পত্র আনতে হবে এবং সেগুলোর প্রতিটির ফটোকপি একসাথে স্ট্যাপল করে আনতে হবে (সত্যায়িতের দরকার নেই)। আমরা অরিজিনাল কপিগুলোর সাথে ফটোকপি মিলিয়ে দেখবো এবং আপনার এম্পলয়মেন্ট ফোল্ডারে ফটোকপিগুলো রেখে আসলগুলো ফিরিয়ে দেবো। কিছু পদের বিপরীতে আসল সনদ গ্রেক কর্তৃপক্ষ নিজ জিম্মায় রেখে দিতে পারেন, যা পার্ট টাইম জব বা ইন্টার্নশীপ এর জন্য প্রযোজ্য নয়। গ্রেকের পক্ষ থেকে নিয়োগ চূড়ান্ত করার আগে আবেদনকারীর ব্যাকগ্রাউন্ড চেক করা হতে পারে এবং রেফারেন্সে উল্লেখিত ব্যক্তিদের সাথে যে কোন সময় যোগাযোগ করা হতে পারে। আপনি সিভিতে যাদের নাম রেফারেন্স হিসাবে উল্লেখ করেছেন তাদের বিষয়টি আগে থেকে জানিয়ে রাখুন।

৩.৫. এমপ্লয়মেন্ট ফোল্ডার

গ্রেক কর্তৃপক্ষের কাছে আপনার নামে একটি হার্ডকপির ফোল্ডার থাকবে, যার উপাদান হলো:
৩.৫.(১). সিভি, যা জবের ইন্টারভিউ এর সময় গ্রেককে দেওয়া হয়েছিল
৩.৫.(২). জরুরী যোগাযোগের তথ্য
৩.৫.(৩). জবের কনট্র্যাক্ট লেটার (নিয়োগ পত্র বা অফার লেটার) যাতে আপনার অরিজিনাল স্বাক্ষর রয়েছে এবং আলাদা কাগজে লিখিত “জব ডিউটি” সমূহ।
৩.৫.(৪). যাবতীয় সার্টিফিকেট ও জাতীয় পরিচয় পত্র ইত্যাদির ফটোকপি
৩.৫.(৫). গ্রেক থেকে পাওয়া ডকুমেন্টও ও গ্রেকে জমা দেওয়া আবেদনসমূহ। বিভিন্ন সময়ে অফিসে জমা দেওয়া ছুটির দরখাস্ত (ছুটির আবেদন প্রতিষ্ঠানের মহাব্যবস্থাপককে নির্দিষ্ট ফরম্যাটে ইমেইল করে পাঠাতে হয় এবং তার প্রিন্ট কপি এই ফোল্ডারে জমা দিতে হয়)। এই অংশে আরো থাকবে কোয়ার্টারলি পারফরম্যান্স ইভ্যালুয়েশন রিপোর্ট।
৩.৫.(৬). আয়পার (AEPER) বা Annual Employer Performance Evaluation and Report যাতে সারা বছরের কাজের রিপোর্ট ও সামনের বছরের টার্গেটসমূহ লিপিবদ্ধ থাকে। এটি গ্রেকের ফুলটাইম এমপ্লয়ীদের ডিসেম্বরের ২০ তারিখের মধ্যে মহাব্যবস্থাপকের কাছে জমা দিতে হয়।

৪. ইনটার্ন বুটক্যাম্প ও ওরিয়ন্টেশন

ওরিয়েন্টেশন ও বুটক্যাম্প প্রোগ্রামে সাধারণত: বিকাল ২টা থেকে সন্ধ্যা ৭ টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয় এবং এরপর ডিনারের মাধ্যমে শেষ হয়।

৪.১. নির্ধারিত সময়ের কমপক্ষে ১৫ মিনিট আগে ইনটার্নদের ট্রেনিং সাইটে আসতে হবে। সম্পূর্ণ ফরমাল পোশাক পরিধান করে আসতে হবে। ধর্মীয় কারণে বিশেষ পোশাকে আপত্তি না থাকলে, পুরুষের ক্ষেত্রে টাই, ফরমাল প্যান্টস এবং সু হতে হবে। জিন্স, পায়ের আঙুল দেখা যায় এমন স্যান্ডেল, মাথায় পরা ক্যাপ বা হ্যাট (ধর্মীয় টুপি বাদে) এবং শার্ট ঝুলে থাকে (যেমন ফতুয়া, হাওয়াইয়ান শার্ট, ক্যাজুয়াল হুডি) এমন পোশাক গ্রেকে নিষিদ্ধ। মেয়েদের ক্ষেত্রে পরিপাটি ও ফরমাল যে কোন পোশাক হতে পারে। ধর্মীয় প্রয়োজনে পরিধান করা যে কোন পোশাক গ্রহণযোগ্য তবে পরিপাটি ও পরিষ্কার হতে হবে। ওরিয়েন্টেশনে কিছু গ্রুপ ছবি তোলা হবে এবং ফাইলে রেকর্ড করা হবে।
৪.২. সুপারভাইজারের কাছ থেকে প্রতি ইনটার্ন তার “ইনটার্ন হ্যান্ডবুক” সংগ্রহ করবেন। এই ফাইলটি সঙ্গে রাখতে হবে এবং গ্রেকে কাজ করার সময় কর্মকাণ্ড নিয়মিত এই হ্যান্ডবুকে লিপিবদ্ধ করতে হবে। ইন্টার্ন হ্যান্ডবুকে প্রতিটি ব্লকের কাজের ধরণ ও মডিউল সিলেবাস উল্লেখ থাকবে।

৫. ব্লক ভিত্তিক প্রজেক্ট অ্যাসাইনিং ও রিপোর্টিং

ব্লকের প্রথম দিনই প্রত্যেক ইন্টার্নকে তার সুপারভাইজার তার প্রজেক্ট বিস্তারিত ভাবে বুঝিয়ে দেবেন এবং দরকারী ট্রেনিং প্রদান করবেন। সপ্তাহে ৫ টি কার্যদিবসের মধ্যে তিন দিন বাসায় বসে কাজ করা যাবে এবং দুই দিন অফিসে আসতে হবে। প্রতি দিন শেষে সম্পাদিত কাজের রিপোর্ট হ্যান্ডবুকে লিপিবদ্ধ করতে হবে। আর এন্ড ডি বিভাগীয় সেমি-উইকলি রিপোর্টিং এর আদলে সাপ্তাহিক রিপোর্ট সুপারভাইজারকে পাঠাতে হবে।
নমুনা রিপোর্টের মধ্যে যা থাকতে হবে:
ক) রিপোর্টকালীন সপ্তাহ (উদাহরণ: মার্চ ৮ থেকে ১৫)
খ) ইতিপূর্বে সম্পাদিত কাজের সারমর্ম
গ) গত ১ সপ্তাহে সম্পাদিত প্রজেক্ট ও টাস্ক সমূহের পরিমাণগত (quantitative) রিপোর্ট। পরিমাণগত রিপোর্ট এর উদাহরণ হলো *** টি ওয়েবসাইট বিশ্লেষণ করে প্রাপ্ত তথ্য একসাথে করে *** নামের ফাইলে ** নামক শীটের মধ্যে রো নং *** থেকে *** এর মধ্যে ডেটা ইনপুট দেওয়া হয়েছে, যার মধ্যে *** টি তথ্য প্রাইমারি রেফারেন্স থেকে নিশ্চিত হতে হবে। পুরো প্রজেক্টের ১২ টি টাস্কের মধ্যে ৪ টি (৩৩%) সম্পন্ন হয়েছে।
ঘ) সামনের এক সপ্তাহে যা করতে চাই তার পরিমাণ ও গুণগত সারমর্ম
কেবলমাত্র গুণগত সারমর্ম দিয়ে ইমেইল রিপোর্টিং গ্রহণযোগ্য না। গুণগত সারমর্মের উদাহরণ হলো “কাজ খুব ভালো চলছে তবে কিছু যায়গায় কিছু অপ্রত্যাশিত সমস্যা হচ্ছে যা সামনের কিছু দিনের মধ্যে কোন ভাবে সমাধান করে নেওয়া হবে”। যথাসম্ভব সংখ্যা ও পরিসংখ্যান দিয়ে তথ্য ও সিদ্ধান্ত পরিবেশন করতে হবে।

৬. ইন্টার্নশিপ থেকে প্রত্যাহার

কোন কারণে ইন্টার্নশীপ থেকে নিজেকে প্রত্যাহার করে নিতে চাইলে প্রথমে সুপারভাইজারের সাথে বিষয়টি আলোচনা করতে হবে। মনে রাখতে হবে, গ্রেকের পক্ষ থেকে এই প্রজেক্টে ট্রেনিং এর জন্য সময় ও লোকবল নিয়োগ করা হয়। সুতরাং প্রত্যেক ইন্টার্ন এর পেশাদারী দায়িত্ব হলো প্রজেক্ট সম্পন্ন করা ও সার্টিফিকেট গ্রহণ করা। প্রজেক্ট শেষ করার আগে ইন্টার্নশিপ থেকে নিজেকে প্রত্যাহার করে নেওয়া পেশাদারিত্বের ঘাটতি প্রমাণ করে। সুপারভাইজারের সঙ্গে আলোচনার পর ডিজিএম/জিএম বরাবর একটি ইমেইল পাঠাতে হবে এবং [email protected] এ একটি কপি দিতে হবে। ইমেইলের সাবজেক্ট হবে Internship discontinuation of {name of the person}. ইমেইলের সুস্পষ্ট ভাবে উল্লেখ করতে হবে কি কারণে এই ইন্টার্নশীপ থেকে সে নিজেকে প্রত্যাহার করে নিচ্ছে। পূর্ণকালীন মেয়াদ সম্পন্ন না হলে সনদপত্র দেওয়া হবে না। কোথাও চাকুরির ইন্টারভিউ দিলে বলতে হবে যে ইন্টার্নশিপ শেষ হবার পরে কাজে যোগ দিতে পারবেন।

৭. ইন্টার্নশিপ থেকে অব্যহতি

গবেষণা ও মানোন্নয়ন বিভাগের সুপারভাইজার যদি ইন্টার্ন এর পেশাদারিত্ব ও কাজের মানে সন্তুষ্ট না হন তাহলে তিনি তাকে অন্য সুপারভাইজারের কাছে অধীনস্থ করবেন। গুরুতর কারণের প্রেক্ষিতে প্রতিষ্ঠান চাইলে ইন্টার্নকে অব্যহতি প্রদান করতে পারে। সেক্ষেত্রে প্রথমে সুপারভাইজার উক্ত ইন্টার্ন এর সাথে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করবেন এবং তারপর জিএম/ডিজিএম এর কাছ থেকে একটি ইমেইল দিয়ে সিদ্ধান্তটি জানানো হবে। পূর্ণকালীন মেয়াদ সম্পন্ন না হলে সনদপত্র দেওয়া হবে না।

Comments

comments