[alert style=”success”]আয়েল্টস টেস্টের চারটি সেকশনের মধ্যে যে সেকশনটিতে একজন পরীক্ষার্থীর সবচেয়ে বেশি ভয়, জড়তা, সংশয়-সংকোচ কাজ করে তা হলো- স্পিকিং সেকশন। তাই এই সেকশনটিতে সাধারণত কেমন প্রশ্ন করা হয় সে সম্পর্কে স্বচ্ছ ধারনা থাকলে ভাল ব্যান্ড স্কোর তোলা কঠিন হবে না।[/alert]

  • সময়: ১১-১৪ মিনিট
  • পেপার ফরমেট: স্পিকিং সেকশনে পরীক্ষার্থীর মৌখিক পরীক্ষা নেয়া হয়। যেখানে পরীক্ষার্থীকে সরাসরি পরীক্ষকের সাথে ইংরেজিতে কথা বলতে হয়। এই অংশের সম্পূর্ণ পরীক্ষাটিই রেকর্ডেড।
  • টাস্কের ধরণ: ৩ ধরনের টাস্ক থাকবে।

আয়েল্টস পরীক্ষার জন্য নির্দিষ্ট তারিখে রেজিস্ট্রেশনের পর স্পিকিং পরীক্ষার তারিখ জানিয়ে দেয়া হয়। অর্থাৎ স্পিকিং টেস্ট হয়তো আয়েল্টস পরীক্ষার দিনের ১ সপ্তাহ আগে কিংবা পরে অনুষ্ঠিত হতে পারে। স্পিকিং টেস্ট কবে অনুষ্ঠিত হবে তা মোবাইল ফোনে ম্যাসেজ করে কিংবা ইমেইল এর মাধ্যমে পরীক্ষার ২-৩ দিন আগেই জানিয়ে দেয়া হয়।

স্পিকিং টেস্ট দেয়ার দিন অর্থাৎ আয়েল্টস ইন্টারভিউ দিতে যাওয়ার সময় অবশ্যই পরিক্ষার্থীকে সাথে পাসপোর্ট নিয়ে যেতে হবে। কারন পাসপোর্ট দেখে পরীক্ষার্থীর রেজিস্ট্রেশন কনফার্ম করা হয়। পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রথমেই আপনাকে আপনার পাসপোর্ট জমা দিতে হবে। পাসপোর্ট জমা দেয়ার পর কিছুক্ষণ অপেক্ষা করতেই আপনাকে ইন্টারভিউয়ের জন্য একটি রুমে ডেকে নিয়ে যাওয়া হবে।

ইন্টারভিউ রুমে একজন নেটিভ ইংলিশ স্পিকার আপনার ইন্টারভিউটি নিবেন। তার সাথে আপনার সাক্ষাৎকারটি সম্পূর্ণ রেকর্ড করা হবে। রেকর্ডিং শেষে আপনার সাথে তার কথোপকথনটি দুইজন অভিজ্ঞ ইংলিশ ট্রেইনার দিয়ে যাচাই করা হবে। এই সাক্ষাৎকারের ভিত্তিতেই আপনাকে স্পিকিং সেকশনের ফাইনাল স্কোর দেয়া হবে।

আয়েল্টস পরীক্ষার টেস্ট ফরমেট সম্পর্কে জানা না থাকলে এখনই ঘুরে আসুন [button size=”large,small,mini” color=”purple” url=”http://hsa.grecbd.com/ielts-test-format/” target= “_blank”]এই লিংক[/button] থেকে। এছাড়াও আয়েল্টস স্পিকিং টেস্টে ভাল করার জন্য টিপস জানতে চোখ রাখুন আর্টিকেলের নিচের অংশে।

স্পিকিং টেস্টের বর্ণনা

নিম্নে আয়েল্টস টেস্টের স্পিকিং সেকশনের প্রতিটি টাস্কের বিশদ আলোচনা করা হলো-

টাস্ক  ১:  ইন্ট্রোডাকশন  অ্যান্ড  ইন্টারভিউ

টাস্কের ধরণ: এই অংশে ইন্টারভিউয়ার প্রথমেই পরীক্ষার্থীর সাথে নিজের পরিচয় দিয়ে পরিচিত হয়ে নেবেন। এরপর তিনি কিছু বেসিক বা সাধারণ প্রশ্ন করবেন। যা অনেকটা আপনার পরিচয়মূলক সাধারণ জিজ্ঞাসা হবে। প্রশ্নগুলো হতে পারে- আপনার নাম, বয়স, পরিবার, পছন্দের কাজ নিয়ে অথবা আপনি কোথায় কাজ করেন সেসম্পর্কে জানতে চেয়ে।

যেমন- প্রশ্নকর্তা (ইন্টারভিউয়ার) জিজ্ঞাসা করতে পারেন- Can you tell me your name, please? How are you? Can I see some identification, please? এছাড়াও আরও প্রশ্ন করতে পারে- How do you spell your name? How old are you? What is your first name? What is your last name? আয়েল্টস টেস্টের স্পিকিং সেকশনে সাধারণত এই ধরনের প্রশ্নই করা হয়।

[alert]তবে লক্ষ্যনীয় যে, এই সকল প্রশ্নের প্রতিউত্তর (রিপ্লাই) আপনাকে এক বাক্যেই জানাতে হবে।[/alert]

আয়েল্টস টেস্টের স্পিকিং সেকশনের মধ্যে সবচেয়ে সহজ হচ্ছে এই টাস্কটি এবং এটাতে ভাল করা সবচেয়ে বেশি সহজ। আর এই টাস্কটিতে আপনি যতোই ভাল করবেন আপনার কনফিডেন্স ততো বেশি বাড়বে। যার মানে আত্মবিশ্বাসের সাথে শুরু করতে পারলে স্পিকিংয়ের পরবর্তী টাস্কে আপনার ভয় থাকবে না। যা সামনের টাস্কে ভাল করতে সাহায্য করবে।

  • টাস্কের মাধ্যমে যা যাচাই করা হয়: এই টাস্কের মাধ্যমে পরীক্ষার্থীর যোগাযোগের ক্ষমতাকে পরখ করে দেখা হয়। এখানে তার নিজের সম্পর্কে এবং দৈনন্দিন কিছু টপিকের উপর খুবই সাধারণ কিছু প্রশ্ন করে তার উত্তর দেয়ার ধরনটি দেখা হয়।
  • সময়: এই টাস্কটি মূলত ৪-৫ মিনিট সময় ব্যাপী হয়ে থাকে
  • প্রশ্নের সংখ্যা: ইন্টারভিউয়ারের উপর নির্ভর করে
টাস্ক  ২:  ইন্ডিভিজ্যুয়াল  লং  টার্ন
  • টাস্কের ধরণ: এই পর্যায়ে পরীক্ষার্থীকে ইন্টারভিউয়ার একটি টাস্ক কার্ড দিবেন। যেখানে পরীক্ষার্থীকে একটি নির্দিষ্ট টপিকের বা বিষয়বস্তুর উপর কথা বলতে হবে। এই টাস্ক কার্ড বা কিউ কার্ডে নির্দিষ্ট টপিকের উপরে ৩-৫টি প্রশ্ন থাকবে।

এই টাস্কে আপনাকে উত্তর প্রস্তুতির জন্য ১ মিনিট সময় দেয়া হবে। এবং আপনি চাইলে আপনাকে একটি পেন্সিল এবং পেপার দেয়া হবে নোট নেয়ার জন্য।

প্রস্তুতি সময় শেষে ইন্টারভিউয়ার নির্দেশ করলে নির্ধারিত টপিকের উপর কথা বলা শুরু করতে হবে। তারপর টানা অন্তত ২ মিনিট ওই নির্দিষ্ট টপিকের উপর কথা বলতে থাকবেন।

২ মিনিট শেষে ইন্টারভিউয়ার ওই টপিকের উপর ১-২ মিনিট সময়ের মধ্যে কিছু প্রশ্ন করবেন। এসময় টাস্ক কার্ডের যে ধরনের টপিক থাকতে পারে তাহলো- School, Family, Job, Hobby, Places, Shopping ইত্যাদি।

যেমন- Describe about the school which you went to when you were a child.

Questions: * When you went there?

* How long you studied there?

* Did you have any friends over there?

* What things you liked about the school?

* What things you disliked about the school?

তবে এই ধরনের টাস্কে শুধুমাত্র প্রশ্নগুলোর উত্তর করাই যথেষ্ট নয়। আপনাকে অবশ্যই প্রশ্নের উত্তরগুলো বর্ণনা করতে হবে। কখনো কখনো প্রয়োজন অনুযায়ী অন্য উদাহরণ টেনে কথা বলে যেতে হবে। এছাড়াও এই টাস্কে নোট নেয়াটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এতে করে আপনি কোন পয়েন্ট ভুলে গেলে, নোট থেকে দেখে নিয়ে অন্তত ২ মিনিট কথা বলতে পারেন।

  • টাস্কের মাধ্যমে যা যাচাই করা হয়: এই টাস্কের মাধ্যমে নির্দিষ্ট বিষয়বস্তুর পরীক্ষার্থীর কথা বলতে পারার ক্ষমতা এবং প্রকাশ ভঙ্গীকে যাচাই করা হয়ে থাকে।
  • সময়: টাস্কটি ৩-৪ মিনিট সময় ব্যাপী হয়ে থাকে
  • প্রশ্নের সংখ্যা: ইন্টারভিউয়ারের উপর নির্ভর করে
টাস্ক  ৩:  টু  ওয়ে  ডিসকাশন
  • টাস্কের ধরণ: এই টাস্কটি ২য় টাস্ক এর উপর ভিত্তি করে ইন্টারভিউয়ার প্রশ্ন করবেন। যেখানে পরীক্ষার্থীকে হয়তো ওই টপিকটিকে আরও গভীর থেকে বর্ণনা করতে হবে কিংবা টপিকের পক্ষে বা বিপক্ষে অবস্থান নিয়ে নিজের মতামত তুলে ধরে ইন্টারভিউয়ারের সাথে কথোপকথন করতে হবে।
  • টাস্কের মাধ্যমে যা যাচাই করা হয়: এই টাস্কের মাধ্যমে নির্দিষ্ট বিষয়বস্তুতে পরীক্ষার্থীর মতামত প্রকাশ, যুক্তি উপস্থাপন এবং বিশ্লেষন করার ক্ষমতাকে যাচাই করা হয়।
  • সময়: টাস্কটি ৪-৫ মিনিট সময় ব্যাপী হয়ে থাকে
  • প্রশ্নের সংখ্যা: ইন্টারভিউয়ারের উপর নির্ভর করে

আয়েল্টস স্পিকিং টেস্টে ভাল স্কোর করার টিপস জানতে পড়ুন এই [button size=”large,small,mini” color=”blue” url=”http://hsa.grecbd.com/ielts-speaking-tips/” target= “_blank”]আর্টিকেলটি[/button]

আয়েল্টস স্পিকিং সেকশনের স্কোরিং

এই সেকশনটি সম্পূর্ণ রেকর্ডেড। টেস্ট অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়ার পর যা দুইজন অভিজ্ঞ ইংলিশ ট্রেইনার যাচাই করে ১-৯ স্কেলে স্কোরিং করবেন। এসময় যেসকল বিষয়গুলো বিবেচনা করা হবে তাহলো- ইংরেজিতে কথা বলার ফ্লুয়েন্সি, কথার মধ্যে সামঞ্জস্যতা, কথা বলার সময় শ্রোতাকে বোঝাতে সহজ শব্দের ব্যবহার, গ্রামারের সঠিক প্রয়োগ এবং শব্দের উচ্চারণ।